Main Menu

কাল হো না হোর ১৫ বছর

২০০৩ সালের ২৮ নভেম্বর মুক্তি পেয়েছিল বলিউডের জনপ্রিয় সিনেমা কাল হো না হো। এরই মধ্যে সিনেমাটি পার করল ১৫ বছর। বক্স অফিসে যেমন আয় করে ছবিটি, তেমনি ভক্তদের মনেও জায়গা করে নেয়। ১৫ বছর পূর্তিতে সিনেমাটি নিয়ে থাকল ১০টি তথ্য।

* ছবিটির মূল তিনটি চরিত্রে অভিনয় করেন শাহরুখ খান, সাইফ আলী খান ও প্রীতি জিনতা। কিন্তু সাইফ আলী খানের জায়গায় পরিচালকের প্রথম পছন্দ ছিল অভিষেক বচ্চন অথবা বিবেক ওবেরয়। তাঁরা রাজি না হওয়ায় সাইফ চরিত্রটি করেন।

*   ন্যায়না চরিত্রটি করণ জোহর লিখেছিলেন কারিনা কাপুরকে ভেবে। কিন্তু লেখার পর প্রীতিকেই তাঁর মনে হয়েছে চরিত্রটির জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত। তাই প্রস্তাবটি প্রীতি জিনতাকে দেওয়া হয়। প্রীতিও লুফে নেন চরিত্রটি।

*   সিনেমার শুটিং হওয়ার কথা ছিল কানাডার টরন্টোতে। কিন্তু শুটিং হয় যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে। তবে কিছু গানের শুটিং হয়েছিল টরন্টোতে।

*   কাল হো না হোর শুরুতেই ন্যায়নাকে দেখা যায় দৌড়াতে। কিন্তু ওটা প্রীতি ছিলেন না। একজন মডেলকে দিয়ে শুটিং করান পরিচালক। কারণ শুটিংয়ে দৌড়াতে গিয়ে চোট পেয়েছিলেন প্রীতি।

*   জয়া বচ্চনের চরিত্রটি প্রথমে করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল নিতু সিংকে।

*   করণ জোহরের বাবা যশ জোহরের প্রযোজনায় এটি ছিল শেষ সিনেমা।

*   নিউইয়র্কে যখন এই ছবির শুটিং করা হয়, তখন করণের বাবা যশ জোহরের ক্যানসারের চিকিৎসা চলছিল। সিনেমায় শাহরুখ খানকে দুরারোগ্য অসুখের সঙ্গে লড়াই করতে দেখা যায় এবং সিনেমায় তিনিও মারা যান, যেমনটা যশ জোহরের বেলায়ও ঘটে।

*   অনেকেই ভেবে বসেন সিনেমাটির পরিচালক করণ জোহর। আসলে এটির পরিচালক নিখিল আদভানি। সিনেমাটি তৈরি হয়েছিল করণ জোহরের গল্পে।

*   ওই বছর সবচেয়ে বেশি আয় করা সিনেমা ছিল কাল হো না হো

*   শাহরুখ খানের জায়গায় ভাবা হয়েছিল সালমান খানকে। যদি প্রীতির জায়গায় কারিনা কাপুরকে নেওয়া হতো, তবে সালমান–কারিনা জুটিকেই দেখতে পেতেন ভক্তরা।